কক্সবাজারে বেড়েছে চোরের দৌরাত্ম্য, খোদ ওসির বাড়িই তছনছ

চোরের উৎপাতে অতিষ্ট কক্সবাজারের চকরিয়া বড়ইতলি ইউনিয়নের মানুষ। প্রতি রাতে ঘরবাড়ি, দোকানপাটে হানা দিচ্ছে চোরের দল। স্বয়ং ওসির ঘরেও দুর্ধর্ষ চুরির পর আতঙ্ক বেড়েছে আরও। এলাকার মানুষের সাথে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও। তবে এখন পর্যন্ত ধরা পড়েনি কেউ।

সম্প্রতি চকরিয়ার বড়ইতলি তেইল্লাকাটা গ্রামের সিএমপির কোতোয়ালী থানার সাবেক ওসি এবং বর্তমানে পিবিআই এর পরিদর্শক নেজাম উদ্দিনের বাড়িতে চুরির ঘটনা ঘটেছে। রাতে ঘরের তালা ভেঙে সেই ঘরে হানা দেয় চোরের দল। ওসি নেজামের মা নিজেও বড়ইতলি ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার।

তিনি বলেন, স্বর্ণালংকারসহ নগদ টাকাও চুরি করে নিয়ে গেছে চোরের দল। সেই সাথে তছতছ করে দিয়ে গেছে গোটা বাড়ি। স্থানীয়দের প্রশ্ন, স্বয়ং ওসির বাড়িতেই যদি এভাবে চুরির ঘটনা ঘটে, তাহলে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা কোথায়? এরই মধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে এখনও কাউকে আটক করা যায়নি। এ নিয়ে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এ বিষয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এরই মধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, চুরি ঠেকাতে ইউনিয়ন পরিষদে জরুরি সভায় বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও বদলায়নি চিত্র। উল্টো স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদেরকেও রাতে পাহারা দিতে হচ্ছে। বড়ইতলি ইউনিয়নের মেম্বার আতিক উল্লাহ বলেন, প্রায় প্রতি রাতে আমার লোকজনদের সাথে আমিও পাহারা দিই। কারণ যারা পাহারা দিচ্ছে, তাদেরও তো নিরাপত্তা প্রয়োজন। স্থানীয়দের দাবি, প্রতি রাতে এই এলাকার কোনো না কোনো বাড়ি বা দোকানে চুরি হচ্ছে। গত দু’মাস ধরে চোরের উৎপাত অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যাওয়ায় আতঙ্কিত সবাই।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *