৬.২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাত

তাইওয়ানের পূর্বা”ঞ্চলীয় উপকূলে শ’ ক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত ‘হেনেছে। রিখ’টার স্কেলে এই ভূমি’কম্পের মাত্রা ছিল ৬ ‘দশমিক ২। দ্বীপ ‘ভূখণ্ডটির আব’হাওয়া ব্যুরো জানিয়েছে, ‘মঙ্গলবার (২৪ অক্টো’বর) তাইওয়ানের পূর্ব

 

 

উপকূলে ৬.২’ মাত্রার এই ভূমিক’ম্প আঘাত হানে। ভূমিকম্পের ‘জেরে রাজধানী তাই’পেইয়ের ভবনগুলো কাঁপলেও ‘এখনও কোনও ক্ষ’য়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। মঙ্গলবার এক প্রতি’বেদনে এই তথ্য জা’নিয়েছে বার্তাসংস্থা

 

 

রয়টার্স।প্রতি’বেদনে বলা হয়ে’ছে, তাইওয়ানের হুয়ালিয়েন কাউন্টিতে ভূপৃষ্ঠের ‘৫.৭ কিলোমিটা”র (৩.৫ মাইল) গভীরতায় ভূ’মিকম্পটি আঘা’ত হানে বলে আবহাওয়া ব্যুরো জানিয়েছে। ‘এদিকে ভূমিকম্পের জে’রে রাজধানী

 

 

তাইপেইয়ের মে’ট্রো পরিষেবার ট্রে’নগুলো ধীর হয়ে যায় তবে পরে সে’ই পরিষেবা বেশ দ্রুত ‘স্বাভাবিক হয়ে যায় বলে শহর কর্তৃপ’ক্ষ জানিয়েছে। প্রসঙ্গ’ত, দু’টি টেকটোনিক প্লেটের সংযোগস্থ’লের কাছে অবস্থিত’ হওয়ায় তাইওয়ানে

 

 

প্রায়ই ভূমিক’ম্প আঘাত হানে। যে’ কারণে এই মাত্রার কিছু ভূমিকম্প সে’খানে প্রাণঘাতী ‘হয়ে উঠতে পারে। যদিও ভূমিকম্পের গ’ভীরতা এবং ‘আঘাত হানার স্থানের ওপর এর ভয়াবহতা’ নির্ভর করে। এর আগে, ‘গত বছরের অক্টোবরে

 

 

তাইওয়া’নের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয়’ ইলান শহরে সাড়ে ৬ মাত্রার ভূমিকম্প ‘আঘাত হানে। ভূপৃষ্ঠ থে’কে প্রায় ৬৭ কিলোমিটার গভীরে ভূমি’কম্পের উৎপত্তি হও’য়ায় সেই সময় সামান্য ক্ষয়ক্ষতি হয়েছি’ল। এছাড়া দ’র্শনীয় পর্যটন কেন্দ্র

 

 

হুয়ালিয়ে’নে ২০১৮ সালে ৬ ‘দশমিক ৪ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হে”নেছিল। সেই ভূমিক’ম্পে অন্তত ১৭ জনের প্রাণহানি এবং’ আরও প্রায়’ ৩০০ জন আহত হয়েছিলেন। এর আগে ২০১৬ সালে দ’ক্ষিণ তাইও’য়ানে আঘাত হানা

 

 

ভূমিকম্পে ১০০ জনে’রও বেশি লোক’ নিহত হয়েছিল। এছাড়া ১৯৯৯ সা’লে ৭.৩ মাত্রার ভূ’মিকম্পে তাইওয়ানে ২ হাজারের’ও বেশি মানুষ প্রা’ণ হারিয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *