নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাল জাপা

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের আগামী নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় পার্টি (জাপা)। তারা নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা

ব্যক্তির কাছে চিঠি পাঠিয়ে তাদের প্রার্থী ও প্রতীক নির্বাচনের অনুমতি চেয়েছেন।শনিবার (১৮ নভেম্বর) নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিকে কেউ চিঠি দেন।

চিঠিতে জিএম কাদের সিইসিকে বলেন, আগামী নির্বাচনে দলের প্রতিনিধিত্ব করবেন এমন ব্যক্তি নির্বাচনের জন্য জাতীয় পার্টি থেকে কাউকে অনুমতি দেওয়া হয়েছে। দলের প্রার্থীর জন্য কোন প্রতীক

ব্যবহার করা হবে সে বিষয়েও তারা সিদ্ধান্ত নেবেন। জাতীয় পার্টির নেতা মোঃ মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, খুব শিগগিরই তাদের দল সিদ্ধান্ত নেবে তারা দ্বাদশ নির্বাচনে অংশ নেবে কি না।

এর আগে জাতীয় পার্টি (জাপা) নামের একটি রাজনৈতিক দলের নেতা বলেছিলেন, নির্বাচনের তথ্যে তারা খুশি। তারা বলেছেন, ভোট সুষ্ঠু হবে। তবে তাদের কথায় আরও সতর্ক ছিলেন দলের আরেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি।

বুধবার এ তথ্য জানানোর পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তারা। রওশন এরশাদ বলেন, তারা আশা করছি আগামী সংসদ নির্বাচন সুন্দর ও সুষ্ঠু হবে এবং বিভিন্ন দলের সবাই এতে যোগ দেবেন।

গাবা বর্তমান পরিস্থিতিতে অংশগ্রহণ করবেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন: “জাপান কখনোই নির্বাচন বয়কট করেনি।” এবারও করবেন না। জাতীয় পার্টি নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। আমরা ভালোভাবে প্রস্তুত।

দলের প্রয়াত চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছেলে রওশাদ এরশাদ ব্যাখ্যা করেছেন যে, একটি দলের সময়, তার বাবা কারাগারে এবং কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েও নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। নির্বাচনে তিনি পাঁচটি আসনে জয়লাভ করেন।

জাপা সাধারণ সম্পাদক মুজিবুল হক চুন্নু অবশ্য সতর্ক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি বলেছিলেন: “সমঝোতার পথটি পরিকল্পনা মতো শেষ হয় না।” এখনো সময় আছে।

মুজিবুল হক বলেন, তারা আশা হারাননি এবং সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে কথা বলে সমাধান খুঁজতে চান। তারা সরকারকে আলোচনা শুরু করতে বলেছে এবং নির্বাচন কমিশনের এ বিষয়ে সাহায্য করার ক্ষমতা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *